দুই দেশের সম্পর্কে নতুন প্রত্যাশা

প্রায় ৪০ বছর আগে বুলগেরিয়ার সাথে সাংস্কৃতিক সহযোগিতার অঙ্গীকার করেও আটকে যায় যাত্রা। পূর্ব ইউরোপের সেই দেশটির সাথে বাংলাদেশের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক উন্নয়নে দেখা দিয়েছে নতুন সূচনার আশা। শুধু সাংস্কৃতিক সহযোগিতা নয়, বুলগেরিয়ার সাথে বাংলাদেশের এবার প্রযুক্তিবিনিময় এবং ব্যবসা-বিনিয়োগেও সহযোগিতার দ্বার উন্মুক্ত হতে চলেছে। পারস্পরিক সহযোগিতায় ৩টি সমঝোতা স্মারক এবং একটি কাঠামোগত চুক্তি হয়েছে। ২০ মে সকালে সোফিয়ায় বুলগেরিয়ার প্রধানমন্ত্রী বয়কো বরিসভের সাথে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একান্ত ও দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের পরপরই দুই দেশের মধ্যে ওই চুক্তিগুলো স্বাক্ষরিত হয়।
বাংলাদেশের প্রথম সরকারপ্রধান হিসেবে শেখ হাসিনা গত ১৮ মে গ্লোবাল উইমেন লিডারস ফোরামে যোগদানের জন্য তিন দিনের সফরে বুলগেরিয়ায় যান। ২০ মে সোফিয়ায় দুই সরকার প্রধানের মধ্যে বৈঠক ও তাদের উপস্থিতিতে কাঠামো চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হয়। প্রথমে বুলগেরিয়ার রাষ্ট্রপতির সাথে সৌজন্য সাক্ষাতের পর গ্লোবাল উইমেন লিডারস ফোরামের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
২০ মে স্থানীয় সময় বেলা ১১টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হোটেল থেকে বুলগেরিয়ার প্রধানমন্ত্রীর দফতর মিনিস্টার্স অব কাউন্সিলে পৌঁছান। এরপর দুই প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে প্রথমে একান্ত বৈঠক ও পরে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক হয়। দুই  প্রধানমন্ত্রী একান্ত বৈঠকের সে দেশের ব্যবসায়ীদের একটি প্রতিনিধি দল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে বৈঠক করেন। এরপর সোফিয়ায় ন্যাশনাল হিস্টরি মিউজিয়াম পরিদর্শন করেন শেখ হাসিনা। ওই দিনই বুলগেরিয়ার জাতীয় সংসদের সভাপতি মিজ সেসকা সাচিভা দানগোভস্কার দেওয়া মধ্যাহ্নভোজে অংশ নেন তিনি।
এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৫ মে লন্ডন পৌঁছান। লন্ডনে তিনি দুদিন অবস্থান করেন। সেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস’ উপলক্ষে ১৭ মে রাতে লন্ডনে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন শেখ হাসিনা। সভায় বিএনপি নেতাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও হত্যার অভিযোগ তুলে তিনি বলেন, ক্ষমতায় থেকে লুটপাট করে খেয়েছে, দুর্নীতি করেছে, মানি লন্ডারিং করেছে, মানুষ হত্যা করেছে। আর এখনও তাদের চরিত্র এতটুকু পরিবর্তন হয়নি। সরকার উৎখাতে বিএনপি-জামায়াতে ইসলামী জোট এখন ইসলাম ধর্মের বিরুদ্ধে ‘ষড়যন্ত্র’ শুরু করেছে। এই চক্রান্তকারী, খুনি, ষড়যন্ত্রকারীরা আজকে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে এমনকি ইসলাম ধর্মের বিরুদ্ধে চক্রান্ত শুরু করে দিয়েছে। ইসরায়েলের ক্ষমতাসীন লিকুদ পার্টির এক রাজনীতিকের সাথে বৈঠকের সূত্র ধরে বিএনপি নেতা আসলাম চৌধুরীকে সম্প্রতি গ্রেফতার করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ সরকারকে উৎখাতে ইসরায়েলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের সাথে তিনি ষড়যন্ত্র করেছেন। বিশ্লেষকরা মনে করেন, বুলগেরিয়ার সাথে একটা নতুন ধরনের অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সম্পর্কের নূতন দিগন্ত উন্মোচন হয়েছে। ১৯৭৪ সালে বাংলাদেশের সাথে বুলগেরিয়ার সাংস্কৃতিক সহযোগিতা চুক্তি এবং পরে সেটা বাস্তবায়িত না হওয়ার বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে উঠে এসেছে। তারা বলছেন, এই চুক্তির ফলে একটা বড় ধরনের অগ্রগতি হবে, দুই দেশের সরকারের মধ্যে অর্থনৈতিক সহযোগিতা, বাংলাদেশ ফরেন সার্ভিস একাডেমি ও বুলগেরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ডিপ্লোম্যাটিক ইনস্টিটিউটের মধ্যে সহযোগিতা এবং বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প ফাউন্ডেশন ও বুলগেরিয়ার ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প এন্টারপ্রাইজ করপোরেশনের মধ্যে সহযোগিতা বাড়বে। বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (এফবিসিসিআই) এবং বুলগেরিয়ান চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা চুক্তির মধ্যে সেটা পরিষ্কার হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিশ্বের অন্যতম প্রধান নেতা হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন বুলগেরিয়ার প্রেসিডেন্ট রোসেন প্লেভনেলিয়েভ। ১৮ মে স্থানীয় সময় বিকেলে বুলগেরিয়ার প্রেসিডেন্ট ভবনে দুই নেতার মধ্যে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে এ কথা বলেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রেসিডেন্ট ভবনে পৌঁছলে রোসেন প্লেভনেলিয়েভ তাকে ভবনের করিডোরে এসে প্রোটোকল সীমানা পেরিয়ে আন্তরিক অভ্যর্থনা জানান। বুলগেরিয়ার প্রেসিডেন্ট গত কয়েক বছরে বাংলাদেশের অর্থনীতির দ্রুত উন্নয়নের প্রশংসা করেন। বিভিন্ন দেশ বাংলাদেশের কাছ থেকে শিখতে পারে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। দুই দেশের পারস্পরিক সহযোগিতা বিষয়ে রোসেন প্লেভনেলিভ বলেন, বাংলাদেশের সাথে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অর্থবহ সহযোগিতা হতে পারে। লন্ডন ও বুলগেরিয়ায় সফর শেষে গত ২১ মে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর আগে তিনি বুলগেরিয়ায় গ্লোবাল উইমেন লিডারস ফোরামে অংশ নিতে গত ১৬ মে ঢাকা থেকে রওনা হন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *