সিলেট পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

কয়েকটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তি স্থাপনের জন্য সিলেটে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশ বিমানের একটি বিশেষ ফ্লাইটে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় সিলেটে পৌঁছান শেখ হাসিনা।

তার সফর উপলক্ষে পুরো শহর সাজানো হয়েছে ব্যানার, পোস্টার, ফেস্টুন, বিলবোর্ড আর তোরণে।

সফরের শুরুতেই হযরত শাহজালাল (র.), হযরত শাহপরাণ (র.) এবং হযরত গাজী বোরহান উদ্দিনের (র.) মাজার জিয়ারত করবেন। দুপুরে সরকারি আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে আওয়ামী লীগের একটি জনসভায় ভাষণ দেবেন শেখ হাসিনা।

দুপুরে হযরত গাজী সৈয়দ বোরহান উদ্দিন (র.) মাজারে পৌঁছার কথা রয়েছে শেখ হাসিনার। তিনি সেখানে প্রায় আট কোটি ২৪ লাখ টাকা ব্যয়ে মাজারের উন্নয়ন, নারীদের জন্য এবাদতখানা নির্মাণ, মাজারের সৌন্দর্যবর্ধন, সংযোগ সড়কসহ যাতায়াতের প্রধান রাস্তার দুই কিলোমিটার প্রশস্তকরণ ও উন্নয়নকাজের উদ্বোধন করবেন।

বার্তা সংস্থা বাসস জানিয়েছে, আজ প্রধানমন্ত্রী সিলেট আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে জনসভার পাশাপাশি একই সঙ্গে সুইচ টিপে যে প্রকল্পগুলো উদ্বোধন করবেন, সেগুলো হচ্ছে— সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ১২তলা ভিত্তির ওপর পাঁচতলা নগরভবন উদ্বোধন, সিলেট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ছয় তলাবিশিষ্ট চারতলা নতুন একাডেমিক কাম প্রশাসনিক ভবন, সিলেটের দক্ষিণ সুরমার ফিরোজপুরে সার পরীক্ষাগার ও গবেষণাগার ভবন, বিভাগীয় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের জেলা অফিস ভবন, সিলেট বিভাগীয় ও জেলা এনএসআই কার্যালয় ভবন, সিলেট মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ও জকিগঞ্জ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত বাবুছড়ার আরসিসি ইউ-টাইপ ড্রেন নির্মাণ, জালালাবাদ রাস্তা সম্প্রসারণ ও এসফল্ট দ্বারা উন্নয়নকাজ, সিলেট-সুনামগঞ্জ বাইপাস সড়ক উন্নয়ন, মৌলভীবাজার-রাজনগর-ফেঞ্চুগঞ্জ-সিলেট সড়ক ও রশিদপুর-বিশ্বনাথ-লামাকাজি সড়কে ওভারলে কাজ, দরবস্ত-কানাইঘাট-শাহবাগ সড়ক মজবুতীকরণ ওভারলে কাজ, ঢাকা (কাঁচপুর)-ভৈরব-জগদীশপুর-শায়েস্তাগঞ্জ-সিলেট-তামাবিল-জাফলং জাতীয় মহাসড়কের সিলেট-শেরপুর অংশের মজবুতীকরণ ওভারলে কাজ এবং শেরপুর টোল প্লাজা অংশে রিজিট প্যাভমেন্ট নির্মাণকাজ, জকিগঞ্জ উপজেলার সুলতানপুর ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন, দক্ষিণ সুরমা উপজেলার কামালবাজার ইউনিয়ন পরিষদ ভবন নির্মাণ, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের অন্তর্গত কানাইঘাট সড়ক ও কুইটুকে তিন তলাবিশিষ্ট প্রাইমারি হেলথ কেয়ার সেন্টার ভবন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী সিলেটের বেশ কিছু উন্নয়ন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন। এর মধ্যে রয়েছে— হযরত শাহজালাল (র.) মাজারের মহিলা এবাদতখানা ও অন্যান্য উন্নয়ন কার্যক্রম, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল নির্মাণ, গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ, সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজে এক হাজার আসনবিশিষ্ট ছাত্রাবাস, ছাত্রী নিবাস ও নার্সিং হোস্টেল নির্মাণ, সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল হাসপাতাল ভবনের চারতলা থেকে ১০তলা ঊর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণ, ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট সিলেট সদর হাসপাতাল নির্মাণ, সিলেট পুলিশলাইনে এসএমপি ব্যারাক ভবন ও অস্ত্রাগার নির্মাণ, কোতোয়ালি মডেল থানায় ১০তলা ভিত্তির ওপর চারতলা ডরমিটরি ভবন নির্মাণ, সিলেট জেলার তামাবিলে ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট (দ্বিতীয় পর্যায়ে) ছয়তলা ভিত্তির ওপর তিনতলা ভবন নির্মাণ, সিলেটের দক্ষিণ সুরমার লালাবাজারে রেঞ্জ রিজার্ভ ফোর্স (আরআরএফ) পুলিশলাইন ভবন নির্মাণ, দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য ভবন নির্মাণ ও সম্প্রসারণ, বিশ্বনাথ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে ৩১ থেকে ৫০ শয্যায় উন্নীতকরণ, বিভাগীয় পরিচালক (পরিবার পরিকল্পনা) ও জেলা পরিবার-পরিকল্পনা অফিস ভবন নির্মাণ, সিলেট-গোলাপগঞ্জ-চারখাই-জকিগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের ৬৫ কিলোমিটার উন্নয়ন, গোলাপগঞ্জ-ঢাকা দক্ষিণ-ভাদেশ্বর ও চারখাই-শেওলা-বিয়ানীবাজার-বারইগ্রাম সড়কের উন্নয়ন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *